নোটিশ বোর্ড

সম্মানিত অতিথি আপনার প্রিয় নজরুলগীতিটি এই ওয়েব সাইটে খুঁজে না পেলে অনুগ্রহ করে আমাদের জানান। আমরা যথা-শীঘ্র সেইটি সংযোজন করার চেষ্টা করবো।

গান শুনুন

Print

নয়ন ভরা জল গো তোমার

বাণী

নয়ন ভরা জল গো তোমার আঁচল ভরা ফুল
ফুল নেব না, অশ্রু নেব ভেবে হই আকুল।।

ফুল যদি নিই তোমার হাতে

জল রবে গো নয়ন পাতে

অশ্রু নিলে ফুটবে না আর প্রেমের মুকুল।।

মালা যখন গাঁথ তখন পাওয়ার সাধ যে জাগে

মোর বিরহে কাঁদ যখন আরও ভালো লাগে।

পেয়ে তোমায় যদি হারাই

দূরে দূরে থাকি গো তাই

ফুল ফোটায়ে যায় গো চলে চঞ্চল বুলবুল।।

রাগ ও তাল

আরবি সুর

তালঃ দাদ্‌রা


অডিও

শিল্পীঃ শ্যামল মিত্র

স্বরলিপি


 

Print

দাও শৌর্য, দাও ধৈর্য্য

বাণী

দাও শৌর্য, দাও ধৈর্য্য, হে উদার নাথ,
			দাও প্রাণ।
দাও অমৃত মৃত জনে,
দাও ভীত –চিত জনে, শক্তি অপরিমাণ।
			হে সর্বশক্তিমান।।
দাও স্বাস্থ্য, দাও আয়ু,
স্বচ্ছ আলো, মুক্ত বায়ু,
দাও চিত্ত অ–নিরুদ্ধ, দাও শুদ্ধ জ্ঞান।
			হে সর্বশক্তিমান।।
দাও দেহে দিব্য কান্তি,
দাও গেহে নিত্য শান্তি,
দাও পুণ্য প্রেম ভক্তি, মঙ্গল কল্যাণ।
ভীতি নিষেধের ঊর্ধে স্থির,
রহি যেন চির — উন্নত শির
যাহা চাই যেন জয় করে পাই, গ্রহণ না করি দান।
			হে সর্বশক্তিমান।।

রাগ ও তাল

রাগঃ হেমকল্যাণ

তালঃ দাদ্‌রা

ভিডিও

Print

দূর দ্বীপবাসিনী

বাণী

দূর দ্বীপবাসিনী, চিনি তোমারে চিনি।
দারুচিনির দেশের তুমি বিদেশিনীগো, সুমন্দভাষিণী।।

প্রশান্ত সাগরে

তুফানে ও ঝড়ে

শুনেছি তোমারি অশান্ত রাগিণী।।

বাজাও কি বুনো সুর পাহাড়ি বাঁ‍শিতে?

বনান্ত ছেয়ে যায় বাসন্তীহাসিতে।

তব কবরীমূলে

নব এলাচীর ফুল দুলে

কুসুমবিলাসিনী।।

রাগ ও তাল

কিউবান সুর

তালঃ কাহার্‌বা


অডিও

শিল্পীঃ সামিনা চৌধুরী

 

Print

দুর্গম গিরি কান্তার মরু

বাণী

দুর্গম গিরি, কান্তারমরু, দুস্তর পারাবার হে!
লঙ্ঘিতে হবে রাত্রি নিশীথে, যাত্রীরা হুঁশিয়ার।।
দুলিতেছে তরী, ফুলিতেছে জল, ভুলিতেছে মাঝি পথ

ছিঁড়িয়াছে পাল কে ধরিবে হাল, কার আছে হিম্মত।
কে আছো জোয়ান, হও আগুয়ান, হাঁকিছে ভবিষ্যত,
এ তুফান ভারী, দিতে হবে পাড়ি, নিতে হবে তরী পার।।
তিমির রাত্রি, মাতৃমন্ত্রী সান্ত্রীরা সাবধান!
যুগ-যুগান্ত সঞ্চিত ব্যথা ঘোষিয়াছে অভিযান।
ফেনাইয়া ওঠে বঞ্চিত বুকে পুঞ্জিত অভিমান,
ইহাদেরে পথে নিতে হবে সাথে, দিতে হবে অধিকার।।
অসহায় জাতি মরিছে ডুবিয়া, জানে না সন্তরণ,
কান্ডারী, আজি দেখিব তোমার মাতৃমুক্তিপণ।
হিন্দু না ওরা মুসলিম ওই জিজ্ঞাসে কোন্‌ জন,
কান্ডারী, বল, ডুবিছে মানুষ সন্তান মোর মার।।
গিরিসংকট, ভীরু যাত্রীরা, গরজায় গুরু বাজ

পশ্চাৎ পথ যাত্রীর মনে সন্দেহ জাগে আজ।
কান্ডারী, তুমি ভুলিবে কি পথ? ত্যজিবে কি পথ মাঝ?
করে হানাহানি, তবু চল টানি নিয়েছ যে মহাভার।।
ফাঁসির মঞ্চে গেয়ে গেল যারা জীবনের জয়গান

আসিঅলক্ষ্যে দাঁড়ায়েছে তারা, দিবে কোন্ বলিদান!
আজি পরীক্ষা জাতির অথবা জাতেরে করিবে ত্রাণ,
দুলিতেছে তরী, ফুলিতেছে জল, কান্ডারী হুঁশিয়ার।।

রাগ ও তাল

রাগঃ বৃহন্নটকেদারা

তালঃ একতাল

 

Print

দক্ষিণ সমীরণ সাথে বাজো বেণুকা

বাণী

দক্ষিণ সমীরণ সাথে বাজো বেণুকা।
মধু-মাধবী সুরে চৈত্র-পূর্ণিমা রাতে, বাজো বেণুকা।।
বাজো		শীর্ণা-স্রোত নদী-তীরে
		ঘুম যবে নামে বন ঘিরে’
যবে		ঝরে এলোমেলো বায়ে ধীরে ফুল-রেণুকা।।
		মধু মালতী-বেলা-বনে ঘনাও নেশা
		স্বপন আনো জাগরণে মদিরা মেশা।
			মন যবে রহে না ঘরে
			বিরহ-লোকে সে বিহরে
		যবে নিরাশার বালুচরে ওড়ে বালুকা।।

রাগ ও তাল

রাগঃ মধুমাধবী সারং

তালঃ ত্রিতাল

অডিও

শিল্পীঃ আমিয়া মতিন

ভিডিও

স্বরলিপি

Print

তোরা সব জয়ধ্বনি কর

বাণী

তোরা সব জয়ধ্বনি কর!

তোরা সব জয়ধ্বনি কর!

নূতনের কেতন ওড়ে কালবোশেখির ঝড়

তোরা সব জয়ধ্বনি কর!!

আস্‌ল এবার অনাগত প্রলয়নেশায় নৃত্যপাগল,

সিন্ধুপারের সিংহদ্বারে ধমক হেনে ভাঙল আগল!

মৃত্যুগহন অন্ধকুপে, মহাকালের চন্ডরূপে ধূম্রধূপে

বজ্রশিখার মশাল জ্বেলে আসছে ভয়ংকর!

ওরে ওই হাসছে ভয়ংকর!

তোরা সব জয়ধ্বনি কর!!

দ্বাদশ রবির বহ্নিজ্বালা ভয়াল তাহার নয়নকটায়,

দিগন্তরের কাঁদন লুটায় পিঙ্গল তার ত্রস্ত জটায়!

বিন্দু তাহার নয়ন জলে

সপ্ত মহাসিন্ধু দোলে

কপোলতলে!

বিশ্ব মায়ের আসন তারই বিপুল বাহুর পর

হাঁকে ঐ জয় প্রলয়ংকর!

তোরা সব জয়ধ্বনি কর!!

মাভৈঃ, ওরে মাভৈঃ, মাভৈঃ, মাভৈঃ জগৎ জুড়ে প্রলয় এবার ঘনিয়ে আসে

জরায়মরা মুমূর্ষুদের প্রাণলুকানো ঐ বিনাশে।

এবার মহানিশার শেষে

আসবে ঊষা অরুণ হেসে

করুণ্ বেশে!

দিগম্বরের জটায় লুটায় শিশুচাঁদের কর!

আলো তার ভরবে এবার ঘর!

তোরা সব জয়ধ্বনি কর!!

রাগ ও তাল

রাগঃ মালকোষ-ভৈরব-মেঘ-বসন্ত-হিন্দোল-শ্রী-পঞ্চম-নটনারায়ণ

তালঃ দ্রুতদাদ্‌রা


অডিও

শিল্পীঃ স্বাগতালক্ষী

 

লগইন

বাণী দেখা হয়েছে

গানের বাণী দেখা হয়েছে 1995771 বার

ওয়েব সাইটটি দেখা হয়েছে

ওয়েব সাইটটি দেখা হয়েছে 4202804 বার