নোটিশ বোর্ড

সম্মানিত অতিথি আপনার প্রিয় নজরুলগীতিটি এই ওয়েব সাইটে খুঁজে না পেলে অনুগ্রহ করে আমাদের জানান। আমরা যথা-শীঘ্র সেইটি সংযোজন করার চেষ্টা করবো।

গান শুনুন

সকল গানের বাণী

Print

এ আঁখি জল মোছ প্রিয়া

বাণী

এ আঁখি জল মোছ প্রিয়া ভোলো ভোলো আমারে।
মনে কে গো রাখে তারে (ওগো) ঝরে যে ফুল আঁধারে।।
ফোটা ফুলে ভরি’ ডালা গাঁথ বালা মালিকা,
দলিত এ ফুল লয়ে, (ওগো) দেবে গো বল কারে।।
স্বপনের স্মৃতি প্রিয় জাগরণে ভুলিও,
ভুলে যেয়ো দিবালোকে রাতের আলেয়ারে।
ঘুমায়েছ সুখে তুমি সে কেঁদেছে জাগিয়া,
তুমি জাগিলে গো যবে সে ঘুমায়ে ওপারে।।

রাগ ও তাল

রাগঃ ভৈরবী

তালঃ কাহার্‌বা

ভিডিও

Print

এ কি অপরূপ যুগল-মিলন


বাণী

এ কি অপরূপ যুগল-মিলন হেরিনু নদীয়া ধামে

বিষ্ণুপ্রিয়া লক্ষী যেন রে গোলক-পতির বামে।।

     এ কি অতুলন যুগল-মূরতি

     যেন শিব-সতী হর-পার্বতী,

জনক-দুহিতা সীতাদেবী যেন বেড়িয়া রয়েছে রামে।।

     গৌরের বামে গৌর-মোহিণী

     (যেন) রতি ও মদন চন্দ্র-রোহিণী

(তোরা) দেখে যা রে আজ মিলন-রাসে যুগল রাধা-শ্যামে।।

 

নাটক: বিষ্ণুপ্রিয়া


রাগ ও তাল

রাগঃ 

তালঃ

Print

এ কি অপরূপ রূপে মা তোমায়

বাণী

এ কি অপরূপ রূপে মা তোমায় হেরিনু পল্লী-জননী।

ফুলে ও ফসলে কাদা মাটি জলে ঝলমল করে লাবনি॥

রৌদ্রতপ্ত বৈশাখে তুমি চাতকের সাথে চাহ জল,

আম কাঁঠালের মধুর গন্ধে জ্যৈষ্ঠে মাতাও তরুতল।

ঝঞ্ঝার সাথে প্রান্তরে মাঠে কভু খেল ল’য়ে অশনি॥

কেতকী-কদম-যূথিকা কুসুমে বর্ষায় গাঁথ মালিকা,

পথে অবিরল ছিটাইয়া জল খেল চঞ্চলা বালিকা।

তড়াগে পুকুরে থই থই করে শ্যামল শোভার নবনী॥

শাপলা শালুক সাজাইয়া সাজি শরতে শিশির নাহিয়া,

শিউলি-ছোপানো শাড়ি পরে ফের আগামনী-গীত গাহিয়া।

অঘ্রাণে মা গো আমন ধানের সুঘ্রাণে ভরে অবনি॥

শীতের শূন্য মাঠে তুমি ফের উদাসী বাউল সাথে মা,

ভাটিয়ালি গাও মাঝিদের সাথে গো, কীর্তন শোনো রাতে মা।

ফাল্গুনে রাঙা ফুলের আবিরে রাঙাও নিখিল ধরণী॥

রাগ ও তাল

রাগঃ বেহাগ মিশ্র

তালঃ দাদ্‌রা

অডিও

শিল্পীঃ দেবব্রত বিশ্বাস

Print

এ কি অপরূপ রূপের কুমার


বাণী

এ কি অপরূপ রূপের কুমার হেরিলাম সখি যমুনা কূলে,

তার       এ সুনীল লাবনি গলিয়া গলিয়া ঢলিয়া পড়িছে গগন-মূলে

যেন       কমল ফুটেছে সখি, সহস্র-দল রূপে-কমল ফুটেছে,

            রূপের সাগর মন্থ করিসখি চাঁদ যেন উঠছেসখি গো

কালো সে রূপের মাঝে হয়ে যায় হারা

কোটি আলো-রাধিকা-রবি, শশী, তারা,

প্রেম-যমুনার তীরে সই আমি রিবধি দেখি তারে,

দেখি আর চেয়ে রই

আমি এই রূপ চেয়ে থাকি

সখি       জনমে জনমে জীবনে মরণে এই রূপ চেয়ে থাকি

         মোহন কালোর গহন কাননে হারাইয়া যাক আঁখি



রাগ ও তাল

রাগঃ
তালঃ ফের্‌তা (দাদ্‌রা ও কাহার্‌বা)

Print

এ কি এ মধু শ্যাম-বিরহে


বাণী

এ কি এ মধু শ্যাম-বিরহে।

হৃদি-বৃন্দাবনে নিতি রসধারা বহে।।

     গভীর বেদনা মাঝে

     শ্যাম-নাম-বীনা বাজে

প্রেমে মন মোহে যত ব্যথায় প্রাণ দহে।।


রাগ ও তাল

রাগঃ সারঙ্গ

তালঃ ত্রিতাল

Print

এ কুল ভাঙ্গে ও কুল গড়ে


বাণী

এ-কূল ভাঙে ও-কূল গড়ে এই তো নদীর খেলা।
সকাল বেলা আমির, রে ভাই (ও ভাই) ফকির, সন্ধ্যাবেলা॥
সেই নদীর ধারে কোন্ ভরসায়
বাঁধলি বাসা, ওরে বেভুল, বাঁধলি বাসা, কিসের আশায়?
যখন ধরলো ভাঙন পেলি নে তুই পারে যাবার ভেলা।
এই তো বিধির খেলা রে ভাই এই তো বিধির খেলা॥
এই দেহ ভেঙে হয় রে মাটি, মাটিতে হয় দেহ
যে কুমোর গড়ে সেই দেহ, তার খোঁজ নিল না কেহ (রে ভাই)।
    রাতে রাজা সাজে নাচমহলে
    দিনে ভিক্ষা মেগে বটের তলে
শেষে শ্মশান ঘাটে গিয়ে দেখে সবাই মাটির ঢেলা
এই তো বিধির খেলা রে ভাই ভব নদীর খেলা॥

রাগ ও তাল

রাগঃ
তালঃ কাহার্‌বা

অডিও

শিল্পীঃ শংকর ঘোষাল

Print

এ কোন মধুর শরাব দিলে

বাণী

এ কোন্‌ মধুর শরাব দিলে আল আরাবি সাকি,
নেশায় হলাম দিওয়ানা যে রঙিন হল আঁখি।।
	তৌহিদের শিরাজি নিয়ে
	ডাকলে সবায় যারে পিয়ে,
নিখিল জগৎ ছুটে এলো রইল না কেউ বাকি।।
বসলো তোমার মহ্‌ফিল দূর মক্কা মদিনাতে,
আল্‌-কোরানের গাইলে গজল শবে কদর রাতে।
	নরনারী বাদশা ফকির
	তোমার রূপে হয়ে অধীর
যা ছিল নজ্‌রানা দিল রাঙা পায়ে রাখি’।

রাগ ও তাল

রাগঃ

তালঃ কাহার্‌বা

ভিডিও

Print

এ কোন মায়ায় ফেলিলে আমায়


বাণী

এ কোন মায়ায়ফেলিলে আমায়

     চির জনমের স্বামী-

তোমার কারণে এ তিন ভুবনে

     শান্তি না পাই আমি।।

     অন্তরে যদি লুকাইতে চাই

এ আগুন আম কেমনে লুকাই, ওগো অন্তর্যামী।।

মুখ থাকিতেও বলিতে পার না বোবা স্বপনের কথা;

বলিতেও নারি লুকাতেও নারি; তেমনি আমার ব্যথা।

     যে দেকেছে প্রিয় বারেক তোমায়

     বর্ণিতে রূপ- ভাষা নাহি পায়

পাগলিনী-প্রায় কাদিঁয়া বেড়ায় অসহায়, দিবাযামী।।


রাগ ও তাল

রাগঃ

তালঃ দাদরা

লগইন

বাণী দেখা হয়েছে

গানের বাণী দেখা হয়েছে 2041960 বার

ওয়েব সাইটটি দেখা হয়েছে

ওয়েব সাইটটি দেখা হয়েছে 4246326 বার