বৈতালিক

  • তুমি চ’লে যাবে দূরে লায়লী

    বাণী

    (হায়) 	তুমি চ’লে যাবে দূরে লায়লী তব মজনু কাঁদিবে একা।
    	বুঝি পাব না তোমায় জীবনে বুঝি এই নিয়তির লেখা।।
    

    নাটিকা: ‘লায়লী-মজনু’

  • দেশপ্রিয় নাই শুনি ক্রন্দন সহসা

    বাণী

    ‘দেশপ্রিয় নাই’ শুনি ক্রন্দন সহসা প্রভাতে জাগি’।
    আকাশে ললাট হানিয়া কাঁদিছে ভারত চির-অভাগী।।
    বহুদিন পরে আপনার ঘরে মা’র কোলে মাথা রাখি’,
    ঘুমাতে এসেছে শ্রান্ত সেননী, জাগায়ো না তারে ডাকি’।
    দেশের লাগিয়া দিয়াছে সকলি, দেয়নি নিজেরে ফাঁকি —
    তাহারি শুভ্র শান্ত হাসিটি অধরে রয়েছে লাগি’।।
    স্বার্থ অর্থ বিলাস বিভব গৌরব সম্মান
    মায়ের চরণে দিয়াছে সে-বীর অকাতরে বলিদান,
    রাজ-ভিখারির ছিল সম্বল শুধু দেহ আর প্রাণ
    তাই দিয়ে দিল শেষ অঞ্জলি দানবীর বৈরাগী।।
    

    প্রথম খন্ড

  • দেশপ্রিয় নাই শুনি ক্রন্দন সহসা প্রভাতে

    বাণী

    ‘দেশপ্রিয় নাই’ শুনি ক্রন্দন সহসা প্রভাতে জাগি’।
    আকাশে ললাট হানিয়া কাঁদিছে ভারত চির-অভাগী।।
    দেশবন্ধুর পার্শ্বে জ্বলিছে দেশপ্রিয়ের চিতা
    এতদিন পরে বক্ষে এসেছে দুঃখের সাথি মিতা,
    বহিছে অশ্রুগঙ্গা, জ্বলিছে শোকের দীপাম্বিতা —
    নিভে যাবে চিতা, রয়ে যাবে ধুম, চিরদিন বুকে জাগি’।।
    তুমি এসেছিলে হিন্দু-মুসলমানের মিলন-হেতু
    পদ্মা ও ভাগীরথীর মাঝারে তুমি বেঁধেছিলে সেতু,
    অন্ধকারের বুকে ছিলে তুমি দীপ্ত চন্দ্র-কেতু —
    বন্ধন হল নন্দন-ফুল-হার তোমার ছোয়া লাগি’।।
    

    দ্বিতীয় খন্ড

  • বনের হরিণ বনের হরিণ

    বাণী

    বনের হরিণ বনের হরিণ ওরে কপট চোর।
    কেমন ক’রে করলি চুরি প্রিয়ার আঁখি মোর।।
    	লায়লীরে তুই দেখ্‌লি কখন
    	কর্‌লি বদল তোদের নয়ন,
    ওরে বন হয়েছে স্বর্গ আমার হেরি নয়ন তোর।।
    

    নাটকঃ ‘লায়লী-মজনু’