নোটিশ বোর্ড

কাজী নজরুল ইসলামের জন্মবার্ষিকীতে নজরুলগীতির সকল শুভানুধ্যায়ীকে জানাচ্ছি প্রাণঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।

গান শুনুন

Print

আমি যদি আরব হতাম মদিনারই পথ

বাণী

  আমি যদি আরব হ’তাম – মদিনারই পথ। এই পথে মোর চ’লে যেতেন নূর নবী হজরত।। পয়জার তাঁর লাগত এসে আমার কঠিন বুকে, আমি ঝর্না হয়ে গ’লে যেতাম অম্‌নি পরম সুখে; সেই চিহ্ন বুকে পুরে পালিযে যেতাম কোহ্‌-ই-তুরে, দিবা নিশি করতাম তাঁর কদম জিয়ারত।। মা ফাতেমা খেলতো এসে আমার ধূলি ল’য়ে আমি পড়তাম তাঁর পায়ে লুটিয়ে ফুলের রেণু হয়ে। হাসান হোসেন হেসে হেসে নাচতো আমার বক্ষে এসে চক্ষে আমার বইতো নদী পেয়ে সে নেয়ামত।।

রাগ ও তাল

রাগঃ দরবারী কানাড়া তালঃ কাহার্‌বা
   

Print

আমি পথ-মঞ্জরী ফুটেছি আঁধার রাতে

বাণী

আমি পথ–মঞ্জরী ফুটেছি আঁধার রাতে। গোপন অশ্রু–সম রাতের নয়ন–পাতে।। দেবতা চাহে না মোরে গাঁথে না মালার ডোরে, অভিমানে তাই ভোরে শুকাই শিশির–সাথে।। মধুর সুরভি ছিল আমার পরাণ ভরা, আমার কামনা ছিল মালা হয়ে ঝ’রে পড়া। ভালোবাসা পেয়ে যদি আমি কাঁদিতাম নিরবধি, সে–বেদনা ছিল ভালো, সুখ ছিল সে–কাঁদাতে।।

রাগ ও তাল

রাগঃ পটমঞ্জরি তালঃ ত্রিতাল (ঢিমা)

স্বরলিপি

 

Print

আমি যার নূপুরের ছন্দ

বাণী

  আমি যার নূপুরের ছন্দ বেণুকার সুর – কে সেই সুন্দর কে! আমি যার বিলাস-যমুনা বিরহ-বিধুর কে সেই সুন্দর কে।। যাহার গানের আমি বনমালা আমি যার কথার কুসুম-ডালা, না-দেখা সুদূর – কে সেই সুন্দর কে।। যার শিখী-পাখা লেখনী হয়ে গোপনে মোরে কবিতা লেখায় সে রহে কোথায় হায়! আমি যার বরষার আনন্দ-কেকা নৃত্যের সঙ্গিনী দামিনী-রেখা, যে মম অঙ্গে কাঁকন-কেয়ূর কে সেই সুন্দর কে।।

রাগ ও তাল

রাগঃ চর্জ্যু কি মল্লার তালঃ কাহার্‌বা

অডিও

শিল্পীঃ রাহাত আরা গীতি
   

Print

আমি ময়নামতীর শাড়ি দেব

বাণী

আমি ময়নামতীর শাড়ি দেব চল আমার বাড়ি ওগো বিন্‌গেরামের নারী তোরে সোনাল ফুলের বাজু দেব চুড়ি বেলোয়ারি।। তোরে বৈঁচী ফুলের পৈঁচী দেব কল্‌মিলতার বালা, গলায় দেবো টাট্‌কা–তোলা ভাঁট্‌ ফুলেরই মালা। রক্ত–শালুক দিব পায়ে, পরবে আল্‌তা তা’রি।। হলুদ–চাঁপার বরণ কন্যা এসো আমার নায় সরষে ফুলের সোনার রেণু মাখাব ওই গায়! ঠোঁটে দিব রাঙা পলাশ মহুয়া ফুলের মউ, বকুল–ডালে ডাকবে পাখি, ‘বউ গো কথা কও!’ আমি সব দিব গো, যা পারি আর যা দিতে না পারি।।

রাগ ও তাল

রাগঃ বাগেশ্রী তালঃ কাহার্‌বা
 

Print

আমি চিরতরে দূরে চলে যাব

বাণী

  আমিচিরতরে দূরে চলে যাব তবু আমারে দেব না ভুলিতে আমিবাতাস হইয়া জড়াইব কেশ বেণী যাবে যবে খুলিতে।। তোমার সুরের নেশায় যখন ঝিমাবে আকাশ কাঁদিবে পবন রোদন হইয়া আসিব তখন তোমার বক্ষে দুলিতে।। আসিবে তোমার পরমোৎসব – কত প্রিয়জন কে জানে, মনে প’ড়ে যাবে কোন্‌ সে ভিখারি পায়নি ভিক্ষা এখানে। তোমার কুঞ্জ-পথে যেতে হায় চমকি’ থামিয়া যাবে বেদনায় দেখিবে কে যেন ম’রে মিশে আছে তোমার পথের ধূলিতে।।

রাগ ও তাল

রাগঃ সিন্ধু-কাফি তালঃ দাদ্‌রা

অডিও

শিল্পীঃ অনুপ ভট্টাচার্য্
   

Print

আমায় নহে গো

বাণী

আমায় নহে গো ভালবাস শুধু ভালবাস মোর গান।

বনের পাখিরে কে চিনে রাখে গান হলে অবসান।।

চাঁদেরে কে চায় জোছনা সবাই যাচে,

গীত শেষে বীণা পড়ে থাকে ধূলি মাঝে;

তুমি বুঝিবে না বুঝিবে না

আলো দিতে পোড়ে কত প্রদীপের প্রাণ।।

যে কাঁটা-লতার আঁখি-জল, হায়, ফুল হয়ে ওঠে ফুটে

ফুল নিয়ে তায় দিয়েছ কি কিছু শূন্য পত্র-পুটে!

সবাই তৃষ্ণা মিটায় নদীর জলে,

কী তৃষা জাগে সে নদীর হিয়া-তলে

বেদনার মহাসাগরের কাছে কর সন্ধান।।

রাগ ও তাল

রাগঃ মিশ্র মুলতানী

তালঃ কাহার্‌বা


অডিও

শিল্পীঃ মাধুরী চট্টোপাধ্যায়


 

 

লগইন

বাণী দেখা হয়েছে

গানের বাণী দেখা হয়েছে 1653515 বার

ওয়েব সাইটটি দেখা হয়েছে

ওয়েব সাইটটি দেখা হয়েছে 3856131 বার