আগমনী

  • এবার নবীন-মন্ত্রে হবে জননী তোর উদ্বোধন

    বাণী

    এবার	নবীন-মন্ত্রে হবে জননী তোর উদ্বোধন।
    	নিত্যা হয়ে রইবি ঘরে, হবে না তোর বিসর্জন।।
    	সকল জাতির পুরুষ-নারীর প্রাণ
    	সেই হবে তোর পূজা-বেদী মা তোর পীঠস্থান:
    সেথা	শক্তি দিয়ে ভক্তি দিয়ে পাতবে মা তোর সিংহাসন।।
    সেথা	রইবে নাকো ছোয়াছুয়ি উচ্চ-নীচের ভেদ,
    	সবাই মিলে উচ্চারির মাতৃ-নামের বেদ।
    মোরা	এক জননীর সন্তান সব জানি,
    	ভাঙব দেয়াল, ভুলব হানাহানি
    	দীন-দরিদ্র রইবে না কেউ সমান হবে সর্বজন,
    	বিশ্ব হবে মহাভারত, নিত্য-প্রেমের বৃন্দাবন।।
    
  • এসো আনন্দিতা ত্রিলোক-বন্দিতা

    বাণী

    এসো আনন্দিতা ত্রিলোক-বন্দিতা কর দীপান্বিতা আঁধার অবনি মা।
    ব্যাপিয়া চরাচর শারদ অম্বর ছড়াও অভয় হাসির লাবনি মা।।
    	সারাটি বরষ নিখিল ব্যথিত
    	চাহিয়া আছে মা তব আসা-পথ,
    ধরার সন্তানে ধর তব কোলে ভুলাও দুঃখ-শোক চির-করুণাময়ী মা।।
    	অটুট স্বাস্থ্য দীর্ঘ পরমায়ু
    	দাও আরো আলো নির্মল বায়ু,
    দশ হাতে তব আনো মা কল্যাণ পীড়িত-চিত গাহে অকাল জাগরণী মা।।
    
  • ওরে আলয়ে আজ মহালয়া

    বাণী

    ওরে	আলয়ে আজ মহালয়া মা এসেছে ঘর।
    তোরা 	উলু দে রে, শঙ্খ বাজা, প্রদীপ তুলে ধর্‌।।
    		(এলো মা, আমার মা)
    		মাকে ভুলে ছিলাম ওরে
    		কাজের মাঝে মায়ার ঘোরে,
    আজ	বরষ পরে মাকে ডাকার মিলল অবসর।।
    	মা ছিল না ব’লে সবাই গেছে পায়ে দ’লে,
    	মার খেয়েছি যত তত ডেকেছি মা ব’লে।
    		মা এসেছে ছুটে রে তাই 
    		ভয় নাইরে আর ভয় নাই,
    মা	অভয়া এনেছে রে দশ হাতে তাঁর বর।।
    
  • জয় দুর্গা জননী দাও শক্তি

    বাণী

    [ওম্ সর্বমঙ্গল্যে শিবে সর্বার্থসাধিকে।
    শরণ্যে ত্র্যম্বকে গৌরী নারায়ণী নমোস্তুতে।।]
    	জয় দুর্গা, জননী, দাও শক্তি
    	শুদ্ধ জ্ঞান দাও, দাও প্রেম-ভক্তি,
    অসুর-সংহারি কবচ-অস্ত্র দাও মা, বাঁধি বাহুতে।।
    অর্থ-বিভব দাও, যশ দাও মাগো, প্রতি ঘরে দাও শান্তি,
    পরম-অমৃত দাও, দূর কর’ মৃত্যু-সম বাঁচিয়া থাকার এই ক্লান্তি।
    	শ্রান্তিবিহীন উৎসাহ দাও কর্মে
    	নবীন দীক্ষা দাও শক্তির ধর্মে
    মোদের রক্ষা কর’ বরাভয় বর্মে, চিন্ময় জ্যোতি দাও প্রতি অণুতে।।